চাকরী খোঁজার আগে আসল কাজটা করেছেন তো?

প্রতিট‍া মানুষেরই স্বপ্ন, শিক্ষাজীবন শেষে একটা ভালো জব নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়া। কাংক্ষিত চাকরী পাবার জন্য চলে আমাদের হাজারো চেষ্টা। চাকরী খোঁজার আগে আমরা নিজের অবস্থানটা খুঁজে দেখিনা, এটাই মূল সমস্যা।

 

প্রতিদিনই চাকরীর জন্য আমরা বিভিন্ন কোম্পানিতে সিভি পাঠাচ্ছি। কিন্তু খুব ছোট কিছু ভ‍ুলের কারণেই যে ‍আমাদের চাকরী খোঁজার কাজটি কঠিন হয়ে যাচ্ছে, সেটা কি আপনি জানেন? ভালো রেজাল্ট থাকার পরও এই ভুলগুলোর কারণেই আমাদেরকে হারাতে হয় পছন্দের জবগুলো।

 

চাকরী খোঁজার আগে

প্রথম চাকরী খোঁজার ক্ষেত্রে কোন বিষয়গুলো অব্শ্যই বিবেচনা করতে হবে, এই কথাগুলো নিয়েই নিউজপেপার১৯৭১ ডটকম ম্যাগাজিনের আজকের এই আর্টিকেল !

 

লক্ষ্য নির্ধারণ কর‍া

চাকরী খোঁজার ক্ষেত্রে অবশ্যই প্রথমে আপনাকে লক্ষ্য নির্ধারণ করে নিতে হবে। আপনি কোন ক্ষেত্রে চাকরী করতে চান, কোথায় জব পেলে আপনার সুবিধা হবে, এটাই প্রথমে ভেবেচিন্তে নির্ধানণ করুন। আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতা সম্পৃক্ত কোম্পানী এবং পছন্দের প্রতিষ্ঠানগুলো সম্পর্কে ভালোমত জানার চেষ্টা করুন। এবং সেই অনুযায়ী নিজেকে প্রস্তুত করে নিন।

চাকরীক্ষেত্র সীমাহীন রাখা

অবশ্যই আপনার নির্ধারিত লক্ষ্য ঠিক রাখুন। তবে চাকরী ক্ষেত্রটির কোনো সীমা রাখা যাবেনা। ভবিষ্যৎ সর্বদাই অনিশ্চিত। হয়ত আপনার পছন্দের জবটি নাও পেতে পারেন। নিজেকে সেভাবেই প্রস্তুত করুন।

 

ভালো মানের সিভি তৈরি করা

একটা ভালো কথা মনে পড়েছে। চেহারা দেখে চাকরী হয়না ????
চাকরীদাতা আপনাকে দেখার আগে সর্বপ্রথম আপনার সিভি দেখবে। তাই কোনো অবস্থাতেই এই সিভি জিনিসট‍াকে অবহেলা করবেন না। খুব গুরুত্ব সহকারে একটি প্রফেশনাল সিভি তৈরি করুন। অনলাইনে একটু ঘাটাঘাটি করলেই এ ব্যাপারে ভালো আইডিয়া পেয়ে যাবেন।

 

প্রযুক্তিগত দক্ষতা অর্জন

প্রযুক্তি নির্ভর এই যুগে পড়ালেখার পাশাপাশি প্রযুক্তি সম্পর্কে জ্ঞান চাকরী পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বাড়িয়ে দেয়। ইউএস নিউজে প্রকাশিত একটি আর্টিকেলের লিংক দিচ্ছি।  9 Things You Absolutely Need to Know Before You Job Search – এটা পড়ে নিতে পারেন। চাকরী খোঁজার আগে কি কি করা উচিত, এ নিয়ে অনলাইনে অনেক ভ‍ালোমানের আর্টিকেল পাবেন। এগুলো পড়লে আপনারই লাভ।

 

প্রতিষ্ঠান বিষয়ক জ্ঞান

কোনো প্রতিষ্ঠান থেকে ইন্টারভিউর জন্য ডাকা হলে প্রথম কোন কাজটি করা উচিত? অবশ্যই সেই প্রতিষ্ঠানটি সম্পর্কে জেনে নেয়া। তাই না? প্রত্যেকাটা কোম্পানী বা প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব ওয়েবসাইট থাকে। সেখান থেকে প্রতিষ্ঠানটি সম্পর্কে বিস্তারিত ভা‍লোভাবে জেনে নিন। যেসব প্রতিষ্ঠানগুলোর ওয়েবসাইট নেই, তারা অবশ্যই প্রযুক্তিগত দিক থেকে অনেক পিছিয়ে পড়া প্রতিষ্ঠান। ভেবে নিন, সেসব কোম্পানীগুলোতে ইন্টারভিউ দিয়ে সময় নষ্ট করবেন কিনা।

 

ইন্টারভিউ দেয়ার দক্ষতা বা‍ড়িয়ে নেয়া

নিয়মিত পত্রিকা পড়ার অভ্যাস করুন। আন্তর্জাতিক বিভাগগুলোয় বিশেষভাবে চোখ রাখুন। এই কাজগুলো Interview Skill বা ইন্টারভিউ দক্ষতা বাড়াতে বেশ সহায়ক। ইন্টারভিউ দেওয়ার সময় একদমই নার্ভাস হওয়া চলবেনা। ভরপুর আত্মবিশ্বাস নিয়ে ইন্টারভিউ ফেইস করুন। প্রয়োজনে নার্ভাসনেস কাটানোর জন্য ফ্রেন্ডদের কারো সাথে ইন্টারভিউ ইন্টারভিউ খেলুন। ???? অর্থাৎ নিজেদের মধ্যে ইন্টারভিউ দেয়ার প্রাকটিস করুন। এতে আপনার জব ইন্টারভিউ দেয়াকালীন জড়তা কেটে যাবে। আর অবশ্যই এটুকু মনে রাখুন, প্রথম সাক্ষাৎ একটি চাকরী পাওয়ার জন্য অবশ্যই অনেক গুরুত্বপূর্ণ। তাই চেষ্টা করবেন, ইন্টারভিউর সময় নিজেকে সুন্দর পরিপাটিভ‍াবে উপস্থাপন করতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *