শক্তিশালী ব্যাটারির পাঁচ স্মার্টফোন

স্মার্টফোন দিয়ে এখন শুধু ফোনের কাজ করা হয় না। ট্যাবলেট, কম্পিউটারের অনেক কাজই এখন স্মার্টফোনে করা হয়। আর তাই স্মার্টফোনের ব্যাটারি সক্ষমতা নিয়ে প্রায়ই দুশ্চিন্তায় ভোগেন ব্যবহারকারীরা। স্মার্টফোন কেনার ক্ষেত্রে সবাই এখন শক্তিশালী ব্যাটারির কথাটা মাথায় রাখেন।

স্মার্টফোনের ব্যাটারির চার্জ ঠিকমতো না থাকায় অনেক ব্যবহারকারীই পোর্টেবল চার্জার সঙ্গে নিয়ে ঘুরতে বাধ্য হন। এই ভোগান্তি থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য দরকার শক্তিশালী ব্যাটারির স্মার্টফোন। ভারতীয় দৈনিক টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে দীর্ঘক্ষণ চার্জ ধরে রাখতে পারে এমন পাঁচটি শক্তিশালী স্মার্টফোনের কথা।

জিওনি ম্যারাথন এম৫ প্লাস

জিওনির ম্যারাথন এম৫ প্লাস স্মার্টফোনে রয়েছে সবচেয়ে শক্তিশালী ব্যাটারি। এতে রয়েছে ৫০২০ এমএএইচ এর লি-পো ব্যাটারি। একবার সম্পূর্ণ চার্জ দিলে থ্রিজি নেটওয়ার্কে টানা ২১ ঘণ্টার ব্যাকআপ দিতে পারে ফোনটি।

আসুস জেনফোন ম্যাক্স (২০১৬)

তাইওয়ানভিত্তিক প্রতিষ্ঠান আসুস তৈরি করেছে জেনফোন ম্যাক্স। ফোনটির ২০১৬ সালের সংস্করণের ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৫০০০ এমএএইচের ব্যাটারি। আসুসের দাবি, এই ব্যাটারির কারণে স্ট্যান্ডবাই মোডে ফোনটি টানা ৩৮ দিন চালু থাকবে।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এ৯ প্রো

কিছুদিন আগে মুক্তি দেওয়া হয়েছে স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি এ৯ প্রো স্মার্টফোনটি। এতে রয়েছে ৫০০০ এমএএইচের ব্যাটারি। এতে রয়েছে ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি। স্যামসাং জানিয়েছে, একবার চার্জ দিলে টানা ২২ ঘণ্টার টক টাইম দিতে পারবে ফোনটি।

প্যানাসনিক পি৭৫

এই ফোনটিতেও রয়েছে ৫০০০ এমএএইচের ব্যাটারি।

লেনোভো ভাইব পি১ টার্বো

স্মার্টফোন নির্মাতা চীনা প্রতিষ্ঠান লেনোভোর জনপ্রিয় সিরিজ ‘ভাইব’। এই সিরিজের ফোন লেনোভো ভাইব পি১ টার্বো। ফোনটিতে রয়েছে ৫০০০ এমএএইচের ব্যাটারি।

এ ছাড়া শক্তিশালী ব্যাটারির আরো বেশ কয়েকটি ফোনের নাম জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া। এসব ফোনের মধ্যে রয়েছে শাওমি মি ম্যাক্স প্রাইম, শাওমি রেডমি ৩এস প্লাস, রেডমি ৩এস প্রাইম, স্যামসাং গ্যালাক্সি জে ম্যাক্স, জোলো এরা ফোরকে, অনার হলি ২ প্লাস, ইউ ইউনিকর্ন এবং জিওনি ম্যারাথন এম৫ লাইট।